স্টার্টআপ তৈরি করার পূর্বে যেসব রিসোর্সের প্রয়োজন (প্রথম পর্ব)

thumbnail

একজন উদ্যোক্তার পরিবেশ ও পরিস্থিতি সবসময়েই ঝুঁকির মধ্যে থাকে। উদ্যোক্তা হিসেবে একটা ব্যবসাকে দাঁড় করানোটা বেশ ঝামেলাযুক্ত একটা কাজ। আর সেই ঝুঁকিটাকে আরেকটু হালকা করতেই আজকের এই ফিচারটি। এই ফিচারে আমি বেশ কিছু ওয়েবসাইট, রিসোর্স আর টুলস সম্পর্কে বলবো যেগুলো ব্যবহার করে একটা নতুন স্টার্টআপ তৈরি করাটা বেশ সহজ হয়ে যাবে। দুই পর্বের এই ফিচারের আজকে প্রথম পর্ব।

ওয়েবসাইট টেমপ্লেট ও ডিজাইন টুলস

একজন উদ্যোক্তাকে যেমন তার মার্কেটিং ও কাজের জন্য ওয়েবসাইট তৈরি করার দরকার পড়ে, ঠিক তেমনই প্রয়োজন পড়ে ট্রেন্ডের সাথে চলার। আর সেজন্য নিচের টুলসগুলো একজন উদ্যোক্তাকে তার ওয়েবসাইট ডিজাইন ও ডেভেলপ করতে সাহায্য করবে। টুলসগুলো হচ্ছে,

ব্র্যান্ডিং এন্ড লোগো ক্রিয়েশন

নিজের ব্যবসার লোগো ও ব্র্যান্ডিং আইকন তৈরি করার জন্য এখন ফটোশপের মতো জটিল অ্যাপ্লিকেশনের দরকার পড়ে না। নিজে নিজেই চাইলে নিচের টুলগুলো ব্যবহার করে নিজের ব্র্যান্ডের লোগো তৈরি করতে পারবেন,

  • লোগাস্টারঃ প্রফেশনাল অনলাইন লোগো মেকার ও জেনারেটর।
  • হিপস্টার লোগো জেনারেটরঃ অসাধারণ সব ডিজাইনের ব্র্যান্ড লোগো জেনারেটর করুন এই টুল দিয়ে।
  • স্কয়ারস্পেস ফ্রি লোগোঃ নিজের ব্যবসার প্রফেশনাল লোগো তৈরি করুন এই টুল দিয়ে।
  • সিগনেচার মার্কেটঃ ব্যবসার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত ডিজিটাল সিগনেচার এখন এই টুল দিয়েই করতে পারবেন।
  • এমভিপি লোগো জেনারেটরঃ এমভিপি কাজের জন্য এখন একেবারে সাধারণ লোগো তৈরি করা সম্ভব এই টুল দিয়েই।

ইনভয়েস জেনারেশন

ব্যবসার ক্ষেত্রে ইনভয়েস বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়, সঠিক, শুদ্ধ আর ভালো ডিজাইনের ইনভয়েস না থাকার কারণে ব্যবসার সুনাম কিছুটা হলেও নিচে নেমে যায়। আর সেজন্য প্রয়োজন নিচের টুলগুলোর,

লিগ্যাল ডকুমেন্টস

একটা ব্যবসা বা উদ্যোগের ক্ষেত্রে লিগ্যাল ডকুমেন্ট তৈরি করাটা বেশ ঝামেলাপূর্ণ একটা কাজ। আর সেই কাজটাই যদি সহজে যেকোনো টুলের মাধ্যমে করা সম্ভব হয়, তাহলে কেন সেই টুলগুলো ব্যবহার করবেন না? এমন কিছু টুলস হচ্ছে,

  • কিসঃ বিনামূল্যে উদ্যোক্তা ও ইনভেস্টরদের জন্য লিগ্যাল ডকুমেন্ট তৈরি করে দেয় তারা।
  • ডোক্রেসিঃ ওপেন সোর্স লিগ্যাল ডকুমেন্ট জেনারেটর।
  • শেইকঃ যেকোনো চুক্তির কাগজপত্র খুব সহজে ও বিনামূল্যে ব্যবহার করার জন্য এই টুলের বিকল্প নেই।

আইডিয়া ম্যানেজমেন্ট

আপনার আইডিয়াই হচ্ছে আপনার ব্যবসার মূলপ্রাণ। সুতরাং, সেটাকে সঠিকভাবে ম্যানেজিং করাটাও আপনার মূল লক্ষ্য। আর তাই নিচের টুলগুলোর মাধ্যমে সেটা করা এখন আরো সহজ। আইডিয়া ম্যানেজিংয়ের জন্য যেসব টুলগুলো ব্যবহার করা উচিৎ সেগুলো হচ্ছে,

  • এক্সপেরিমেন্ট বোর্ডঃ কোনো অর্থ খরচ না করেই খুব সহজে আপনার আইডিয়াটাকে এখন পরিক্ষা নিরীক্ষা করতে পারবেন এই টুল দিয়ে।
  • জার্ম ডট আইওঃ একেবারে আইডিয়া তৈরি থেকে শুরু করে তারা আপনাকে এর ইমপ্লিমেন্টেশন পর্যন্ত সাহায্য করবে।
  • স্কিচঃ আপনার আইডিয়াকে বাস্তবতার সাথে মিলিয়ে দেখাতে তাদের জুড়ি নেই।

বিজনেস এন্ড প্রজেক্ট নেম জেনারেটর

একটা ব্যবসার ক্ষেত্রে তার নামই কিন্তু মূল ব্র্যান্ডিং। একটা সুন্দর নাম যদি তার কাজ ও মূল লক্ষ্যের সাথে না মেলে, তাহলে এর মূলেই সেটা ধ্বংস হওয়া শুরু করে। সেজন্যে ব্যবসার নামের দিকে খেয়াল রাখাটাও জরুরী। আর তাই নিচের টুলগুলো আপনাকে সুন্দর কিছু নাম বাছাই করতে সাহায্য করবে,

  • দ্যা নেইম অ্যাপঃ আপনার অসাধারণ আইডিয়ার জন্য অসাধারণ একটা নাম বাছাই করার কাজ করবে এই টুলটি।
  • ন্যামিনামঃ আপনার কোম্পানির জন্য সেরা একটা নাম বাছাই করে দেবে তারা।
  • শর্ট ডোমেইন সার্চঃ ছোটখাট ডোমেইনের দিকে সবার নজর থাকাটা স্বাভাবিক। আর সেটাই করবে এই টুলটি।
  • ওয়ার্ডড্রয়েডঃ আপনার ব্যবসার জন্য প্রফেশনাল নাম বাছাইয়ের কাজ হচ্ছে এই টুলের।
  • ইমপসিবিলিটিঃ এখন পর্যন্ত মার্কেটে থাকা সেরা একটা বিজনেস নেম জেনারেটর এটি।
  • ডোমেইনআরঃ দ্রুতগতিতে আপনার ব্যবসার ডোমেইন নেইম সার্চ করুন এই টুল দিয়ে।

রাইটিং এন্ড ব্লগিং টুলস

প্রত্যেকটা ব্যবসায়ীক সাইটের ব্লগ সেকশন এখন বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটা অংশ। আর তাই রাইটিংয়ের দিকেও মনোযোগ দেয়া উচিৎ। আর সেই কাজে নিচের টুলগুলোই আপনাকে সাহায্য করবে,

  • হেমিংওয়েঃ এই টুলটি আপনার লেখাগুলোকে পরিষ্কার আর সুন্দর করে তুলবে।
  • গ্র্যামারলিঃ আপনার লেখার বানান ও ভুলগুলোকে শুদ্ধ করে দেয়া এই টুলের কাজ।
  • মিডিয়ামঃ সহজেই নিজের আইডিয়াগুলোকে শেয়ার করুন ও খুঁজে পান পারফেক্ট একটা আইডিয়া।
  • জেনপেনঃ একেবারে ঝামেলা ছাড়াই অনলাইনেই লিখুন আপনার লেখাগুলোকে।
  • লাইবেরিয়োঃ গুগল ড্রাইভ থেকে লেখাগুলোকে এখন এক ক্লিকেই পিডিএফ করে ফেলুন এই টুল দিয়ে।
  • এডিটোরিয়াল ক্যালেন্ডারঃ আপনার ব্লগের লেখা ও প্রত্যেকটা আর্টিকেলকে এখন এক জায়গায় বসেই দেখুন এই টুল দিয়ে।
  • স্টোরি ওয়ারসঃ ব্যবসার স্টোরি লেখার সময় আরো উদ্যোক্তাদের সাহায্য নিতে সাহায্য করবে এই টুলটি।
  • ডব্লিউপি হাইড পোস্টঃ আপনার ব্লগের ভিজিবিলিটি নিয়ন্ত্রণ করুন একটা টুল দিয়েই।
  • সোশ্যাল লকারঃ আপনার আর্টিকেলকে এখন আরো বেশি শেয়ারেবল করুন এই টুল দিয়ে।
  • এগ টাইমারঃ একই লেখা বারবার প্রকাশ করাটা এখন অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে এই টুল ব্যবহার করে।
  • হাবস্পট ব্লগ টপিক জেনারেটরঃ আপনার ব্লগে লেখা দেয়ার কিছু খুঁজে পাচ্ছেন না? এই টুল এখন এই সমস্যার সমাধান করে দেবে।

3 thoughts on “স্টার্টআপ তৈরি করার পূর্বে যেসব রিসোর্সের প্রয়োজন (প্রথম পর্ব)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 

Back To Top