স্টার্টআপ তৈরি করার পূর্বে যেসব রিসোর্সের প্রয়োজন (দ্বিতীয় পর্ব)

thumbnail

একজন উদ্যোক্তার পরিবেশ ও পরিস্থিতি সবসময়েই ঝুঁকির মধ্যে থাকে। উদ্যোক্তা হিসেবে একটা ব্যবসাকে দাঁড় করানোটা বেশ ঝামেলাযুক্ত একটা কাজ। আর সেই ঝুঁকিটাকে আরেকটু হালকা করতেই আজকের এই ফিচারটি। এই ফিচারে আমি বেশ কিছু ওয়েবসাইট, রিসোর্স আর টুলস সম্পর্কে বলবো যেগুলো ব্যবহার করে একটা নতুন স্টার্টআপ তৈরি করাটা বেশ সহজ হয়ে যাবে। দুই পর্বের এই ফিচারের আজকে দ্বিতীয় পর্ব। প্রথম পর্ব পড়ুন এখান থেকে

এসইও এন্ড সাইট অ্যানালাইসিস

ওয়েবসাইট তৈরির পর সেটাকে আপনার প্রতিযোগীদের সাথে তুলনা করার জন্য ও গুগলের মতো অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনে সেটাকে তুলে ধরার জন্য প্রয়োজন হবে নিচের এই টুলগুলোর,

  • ওপেন সাইট এক্সপ্লোরারঃ লিংক অ্যানালাইসিসের জন্য ব্যবহৃত হয় এমন একটি অসাধারণ টুল এটি।
  • এএইচরেফসঃ সাইট এক্সপ্লোর করার জন্য ও ব্যাকলিংক চেক করার জন্য অসাধারণ একটি টুল।
  • কুইক স্প্রাউটঃ আপনার ওয়েবসাইটের সম্পর্কে এক পেইজে সবকিছু জানতে হলে এই টুলের ব্যবহার করাটা জরুরী।
  • ওয়ার্ডপ্রেস এসইও বাই ইয়োস্টঃ সম্পূর্ণ ওয়েবসাইটকে এসইও অপ্টিমাইজড করতে এই টুলের জুড়ি নেই।
  • এসইও সাইট চেকাপঃ আপনার ওয়েবসাইটের এসইও সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যা খুঁজে বের করবে এই সাইটটি।
  • হাবস্পট মার্কেটিং গ্রেডারঃ আপনার মার্কেটিং মেথড ও স্ট্র্যাটেজিকে গ্রেডিং করুন এই টুল দিয়ে।
  • সিমিলার ওয়েবঃ আপনার সাইটকে অন্যান্য সাইটের সাথে তুলনা করুন এই টুল দিয়েই।
  • অ্যালেক্সা র‍্যাংকিংঃ আপনার সাইটের র‍্যাংক চেক করুন ও এর সাথে সম্বলিত বিভিন্ন তথ্য খুঁজে পান এই টুলের মাধ্যমে।
  • সার্পস র‍্যাংক চেকারঃ আপনার ওয়েবসাইটের সার্প র‍্যাংক ও এর সাথে সংযুক্ত তথ্যগুলোকে খুঁজে পেতে সাহায্য করবে এই টুলটি।

ইমেজ অপ্টিমাইজারস

একটি ওয়েবসাইটে যত সুন্দর আর ভালো সাইজের ছবি থাকবে তত দ্রুত সাইটটি লোড হবে ভিউয়ারদের কাছে। যার ফলে ভিউয়াররা সাইট ভিজিট করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবে। আর সেজন্য ইমেজ অপ্টিমাইজার হিসেবে নিচের টুলগুলোকে ব্যবহার করা উচিৎ,

  • টাইনি জেপিজিঃ এই টুলটি আপনার ছবিকে কম্প্রেস করতে সাহায্য করবে।
  • কম্প্রেসার ডট আইওঃ অনলাইনেই আপনার ছবিগুলোকে কম্প্রেস করুন এই টুল দিয়ে।
  • ক্র্যাকেনঃ আপনার ওয়েবসাইটকে কম্প্রেস ও অপ্টিমাজড করতে এই টুলের জুড়ি নেই।
  • ইমেজ অপ্টিমাইজারঃ আপনার সাইটের ছবিগুলোকে রিসাইজ, অপ্টিমাইজ ও কম্প্রেস করুন এখন মাত্র একটা টুল দিয়েই।
  • ডাংকঃ অসাধারণ সব কম্প্রেসড মক-আপ ব্যবহার করুন এই টুল দিয়ে।
  • ইন্সটা মক-আপঃ আপনার সাইটের অসাধারণ মক-আপ তৈরি করুন এই টুল দিয়ে।

ইমেজ এডিটর

মানুষের হাতে বর্তমানে সময় খুবই অল্প। বিশেষ করে, উদ্যোক্তাদের হাতে। তাদের ব্যবসাকে নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি অনেক কিছুই করতে হয়। আর সেজন্য কয়েক ঘন্টা সময় অতিবাহিত করে একটা ছবি সম্পাদনা করাটা তাদের কাছে বেশ কষ্টকর। আর সেজন্যে এই টুলগুলো বেশ উপকারী,

  • পিক্সেলআরঃ ব্রাউজার দিয়েই আপনার ছবিগুলোকে এডিট করুন এই টুলের সাহায্যে।
  • স্কিচঃ কম শব্দে আপনার ছবিকে এডিট করুন, এই টুল দিয়ে।
  • এজেল ডট এলওয়াইঃ আপনার লেখা ও ছবিগুলোকে ভিজ্যুয়ালি ছড়িয়ে দিন এই টুলের মাধ্যমে।
  • সোশ্যাল ইমেজ রিসাইজ টুলঃ সামাজিক মাধ্যমগুলোকে আপনার ছবিগুলোকে শেয়ার করার জন্য এই টুলটি সেগুলোকে রিসাইজ করে দেবে, ঝামেলা ছাড়াই।
  • রিসাইটঃ উক্তিগুলোকে অসাধারণভাবে সাজিয়ে তুলতে এই টুলের জুড়ি নেই।

ইমেইল ম্যানেজমেন্ট

ইমেইল মার্কেটিং আপনার ব্যবসার জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি মার্কেটিং মেথড। কিন্তু সঠিক রিসোর্স না থাকার কারণে সেটাকে পরিপূর্নভাবে ব্যবহার করতে পারছেন না আপনি। নিচের টুলগুলো ব্যবহার করে এই সমস্যার সমাধান করতে পারেন,

  • কন্টাক্ট ফর্ম সেভেনঃ ইমেইল এড্রেস সংগ্রহ করার জন্য সবচেয়ে সেরা একটি ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইন।
  • মেইলচিম্পঃ বিনামূল্যে ২০০০ ক্রেতার কাছে মেইল পাঠান, তাও আবার ১২০০০ মেইল পাঠানোর সুবিধা থাকছে এই টুলে।
  • হ্যালো বারঃ ইমেইল সাবস্ক্রাইব সংগ্রহ করার অসাধারণ একটি টুল।
  • সামওয়ান লিস্ট বিল্ডারঃ দ্রুততার সাথে ইমেইল লিস্ট সংগ্রহ করতে এই টুলটি অসাধারণ কাজ করছে।
  • স্ক্রল টিগারড বক্সঃ আপনার ওয়েবসাইটের কনভার্সন রেট বৃদ্ধি করুন এই টুলের মাধ্যমে।
  • ম্যান্ড্রিলঃ বিনামূল্যে প্রত্যেক মাসে ১২০০০ এর বেশি মেইল পাঠাতে এই টুলটি ব্যবহার করুন।
  • ব্রিফ্রিঃ বিনামূল্যে ইমেইল টেমপ্লেট ডিজাইন করুন এই টুল দিয়ে।

গাইডস এন্ড কোর্সেস

উদ্যোক্তাদের কাজের ক্ষেত্রে গাইডলাইনের প্রয়োজন অনেক। আর সেজন্য নিচের টুলগুলো আপনাকে সেই গাইডলাইন প্রদান করতে সাহায্য করবে। একইসাথে নিচের টুলগুলো থেকে পাবেন অসাধারণ সব কোর্স,

  • প্রাইমারঃ কোনো ধরনের ঝামেলাঝঞ্ঝাট ছাড়াই গুগলের তৈরি করা এই টুলটি আপনাকে মার্কেটিংয়ে দক্ষ হতে সাহায্য করবে।
  • কিপ ইউর ফ্রেন্ডস ক্লোসঃ কাস্টোমারের লাইফটাইম ভ্যালু বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে এমন একটু টুল।
  • প্রাইসিং কোর্সঃ আপনার মূল্য কতটুকু সেটা জানতে এই নয়দিনের কোর্সটি করতে পারেন।
  • ইমেইল কোর্স ফর স্পন্সরশীপঃ কিভাবে সবকিছু থেকে ইমেইলের মাধ্যমে স্পন্সরশীপ নিয়ে আসবেন তারই কোর্স এটি।
  • স্টার্টআপ সেলস কোর্সঃ একটি ফ্রি কোর্স, যার মাধ্যমে আপনি বেশ ভালোমানের একজন মার্কেটার হিসেবে গড়ে উঠতে পারবেন।
  • মেইলচার্টসঃ ফ্রি ইমেইল কোর্স, যেটা আপনাকে ভালো মার্কেটার তৈরিতে সাহায্য করবে।
  • ফ্রি সাইট গাইডঃ সফল ব্লগিংয়ের গাইডলাইন।

সোশ্যাল মিডিয়া এন্ড কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট

সামাজিক মাধ্যমগুলো বর্তমানে আমাদের যোগাযোগের অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে ঠিকই কিন্তু এরই সাহায্যে আমরা চাইলে হাজার হাজার ক্রেতা তৈরি করতে পারি। আর তাই ব্যবসার কাজে সোশ্যাল মিডিয়ার গুরুত্ব অনেক। আর নিচের টুলগুলো আপনাকে সে কাজেই সাহায্য করবে,

উপরের টুলগুলো রিসোর্স হিসেবে আপনার ব্যবসার কাজে অনেক বেশি সহায়তা করবে আশা করা যায়। শুধুমাত্র সঠিক কাজে ও সঠিক সময়ে এই রিসোর্সগুলোকে ব্যবহার করলেই এর দ্বারা সফলতা পাওয়া সম্ভব।

4 thoughts on “স্টার্টআপ তৈরি করার পূর্বে যেসব রিসোর্সের প্রয়োজন (দ্বিতীয় পর্ব)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 

Back To Top