ব্যবসা শুরুর আগে যে বিষয়গুলো আপনার জানা উচিৎ

thumbnail

ব্যবসা শুরু করাটা যেমন উত্তেজনামূলক কাজ তেমনি বেশ বিপজ্জনকও বটে। ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনি শুরু থেকেই কোনো কিছু বলতে পারবেন না। যত বেশি আপনি ব্যবসার ভেতরের দিকে যেতে থাকবেন আর যত বেশি আপনি ব্যবসা সম্পর্কে জানতে পারবেন তত তাড়াতাড়িই আপনি ব্যবসায় সফল হতে পারবেন। আজকের আর্টিকেলটি হচ্ছে, এমন কিছু বিষয় নিয়েই যেগুলো একজন উদ্যোক্তাকে নতুন উদ্যোগ নেয়ার শুরুতেই জানা উচিৎ।

পরিসংখ্যানের উপর নির্ভর করবেন না

প্রত্যেকটা মানুষই দেখবেন আপনাকে বিভিন্ন ধরণের পরিসংখ্যান দেখাবে যে, ‘এসব পণ্য নিয়ে ব্যবসা শুরু করলে ৯৫ শতাংশ ব্যবসাই ১ বছরের বেশি টিকতে পারে না!’ কিংবা ‘ব্যবসার ক্ষেত্রে পরিসংখ্যান অনেক কথাই বলে দেয়!’ আসলে ব্যাপারটা সম্পূর্ন ভুল। এটা যেমন ঠিক যে, পরিসংখ্যানের কারণে আপনার পণ্য সম্পর্কে অন্যান্য কোম্পানি বা সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের লাভ ক্ষতির ব্যাপারটা সহজে বুঝতে পারবেন কিন্তু তার মানে এই নয় যে, পরিসংখ্যানই সবকিছু। পরিসংখ্যানের দিকে তাকিয়ে থেকে আপনার নিজের অনুপ্রেরণাটাকে নষ্ট করবেন না।

পছন্দসই পণ্য বা সেবা নিয়ে ব্যবসায় নামুন

এমন কোনো পণ্য বা সেবা নিয়ে ব্যবসা করতে যাবেন না, যেটাতে আপনার আগ্রহ নেই কিংবা আগামী পাঁচ বছর পরে যেটার উপর থেকে আপনার আগ্রহ উঠে যাবে। বেশিরভাগ ব্যবসার শুরুতেই দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার একটা বিশেষ কারন হচ্ছে ‘জোরজবরদস্তি করে ব্যবসা করা।’ সত্যিকার অর্থে, এমন কোনো পণ্য বা সেবা নিয়েই আপনার সামনে এগিয়ে যাওয়া উচিৎ যেটা আপনি খুশি মনে, নিজের ইচ্ছেতে আর সম্পূর্ণ উৎফুল্লতার সাথে আগামী পাঁচ বছর ধরে করে যেতে পারবেন।

স্বীকার করা শিখুন

আপনার যদি একটা ব্যবসায় নামার মূল টার্গেট থাকে, শেখা; তাহলে কোনোদিনও আপনি সেই ব্যবসায় লাভ করতে পারবেন না, এমনকি শিখতেও পারবেন না। একটা ব্যবসায় লোকসান হওয়ার হাজারটা পথ থাকতে পারে কিন্তু জয়ী হওয়ার পথ থাকে একটাই। আপনার পক্ষে সেই হাজারটা পথ খুঁজে বের করার চেয়ে লাভবান হওয়ার পথটা খুঁজে বের করাটাই বেশি উত্তম পন্থা হবে। সেজন্য ক্ষতি হবে ধরে নিয়ে ব্যবসা চালানোর চাইতে সেই ব্যবসার পা না রাখাই উত্তম। আপনার স্বীকার করতে হবে যে, আপনি একটা ব্যবসা থেকে সবকিছু শিখতে পারবেন না। আপনাকে বিভিন্ন ধরণের ব্যবসায়, এমনকি কয়েকটা ব্যবসাতেও পা রাখতে হতে পারে। একজন উদ্যোক্তা কখনোই একটা ব্যবসা থেকে লাভ লোকসান সবকিছু শিখতে পারে না।

একটা আইডিয়ার পর আরেকটা শুরু করুন

এই সমস্যাটা প্রত্যেকটা উদ্যোক্তার ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে। একটা আইডিয়া নিয়ে কাজ করার সময় মাথায় আরো হাজারটা আইডিয়া এসে জমা হয়। যার ফলে আমরা বারবার আইডিয়া পরিবর্তন করতে শুরু করি। এই কাজটা করা উচিৎ নয়। আমাদের উচিৎ হাজারটা আইডিয়া নিয়ে একসাথে কাজ করার চাইতে একই আইডিয়ার উপর হাজারবার কাজ করা। এতে করে অন্তত যেকোনো একটা আইডিয়া সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। বারবার আইডিয়া পরিবর্তন করার এই সমস্যাটাকে দূর করতে না পারলে কখনোই আপনি কোনো আইডিয়া নিয়েই সামনে এগুতে পারবেন না।

সঠিক পার্টনার বাছাই করুন

কারো পক্ষেই একাকী একটা ব্যবসা সম্পূর্ণভাবে চালানো সম্ভব নয়। কোনো না কোনো সময় পার্টনারের আবশ্যকতা দেখা দেয়। সেক্ষেত্রে পার্টনার বাছাইয়ের সময় অবশ্যই আপনাকে আরো বেশি সচেতন হতে হবে। কারণ, ভুল পার্টনার বাছাই করার কারণে আপনার সম্পূর্ণ কোম্পানিই বিপদের মুখে দাঁড়াতে পারে।

মার্কেটিংয়ের দিকে গুরুত্ব দিন

ভুলে যাবেন না, আপনার পন্য বা সেবা যদি দেশলাইয়ের কাঠি হয়ে থাকে তাহলে মার্কেটিং হচ্ছে কেরোসিন। একবার আপনার দেশলাইয়ের কাঠি অর্থাৎ পণ্য বাজারে আসার পর আপনাকে বারবার কেরোসিন ঢালতে হবে অর্থাৎ মার্কেটিং করতে হবে। যত বেশি মার্কেটিং করবেন, তত বেশি আপনার ক্রেতা বাড়তে থাকবে। মার্কেটিংয়ের বিকল্প বলতে কিছুই নেই। মার্কেটিংয়ের মাধ্যমেই আপনার ক্রেতা ধরে রাখা থেকে শুরু করে, নতুন ক্রেতা জেনারেট করাও সম্ভব হবে। তাই যত বেশি পারুন মার্কেটিংয়ের দিকে মনোযোগ দিন। তবে এটা অবশ্যই মনে রাখবেন যে, সঠিক মার্কেটিং করাটাও কিন্তু জরুরী। কারণ, ভুল মার্কেটিংয়ের কারণে আপনার পন্য বা সেবা বাজারে ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে।

আরেকজনের কথা কানে নেয়াটা বন্ধ করুন

যে আপনাকে নিয়ে কথা বলছে, খেয়াল করলে দেখবেন সে আপনার থেকেও নিচে পড়ে আছে। প্রত্যেকটা কাজেই এমন কিছু মানুষ থাকে, যারা আপনার নিন্দা করার কাজে প্রতিনিয়ত ব্যস্ত থাকে। আপনি কোনো একটা পণ্য বা সেবা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করার সাথে সাথেই তাদের হাসাহাসি আর নিন্দা করার কাজ শুরু হয়ে যায়। তাদের কথা শুনে নিজের ইচ্ছে আর কাজগুলোকে পিষে ফেলবেন না। অনেকেই আছেন, নিজের সম্পর্কে আর নিজের আইডিয়াগুলোর বদনাম সহ্য করতে পারেন না। দয়া করে ওসব মানুষের কথায় কান দিতে যাবেন না, যারা নিজেরা কিছু না করেই আরেকজনের কাজে হস্তক্ষেপ করে থাকে।

টাকা জোগানোর জন্য অন্য কাজও করুন

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় ভুলটা একেবারেই সাধারণ। অনেকেই নতুন ব্যবসা শুরু করার আগেই নিজের চাকরি ছেড়ে দিয়ে একেবারে ব্যবসার পেছনে লেগে থাকেন। এটা করা উচিৎ নয়। ভুলে যাবেন না, ব্যবসার ভবিষ্যৎ কেউ জানে না। এমনকি আপনার প্ল্যানিং যতই মনোমুগ্ধকরই হোক না কেনো, আপনার ভবিষ্যৎ চিন্তার আগে বর্তমান নিয়ে ভাবা উচিৎ। আর তাই চাকরি ছেড়ে সম্পূর্ণভাবে ব্যবসার দিকে মনোযোগ না দিয়ে, চাকরির পাশাপাশি নিজের স্বপ্নকে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন।

একটা ব্যবসা শুরুর পূর্বে সবচেয়ে বড় যে বিষয়টার দিকে আপনার মনোযোগ দেয়া উচিৎ, সেটা হচ্ছে নিজের বিশ্বাস। ধরুণ, আপনার স্বপ্ন হচ্ছে একটা লাইব্রেরী দিয়ে ব্যবসা শুরু করা। কিন্তু আপনি আগে থেকেই জানেন, আপনার এলাকায় আরো পাঁচটা লাইব্রেরী আছে। তাহলে আপনি কি সেই স্বপ্ন থেকে দূরে চলে যাবেন? আপনার উচিৎ হবে এমন কোনো ইউনিক পদ্ধতি নিয়ে ভাবা যেটার কারণে ক্রেতাদের তাদের পরিচিত লাইব্রেরী থেকে বেরিয়ে আসতে হয়। ভুলে যাবেন না, ব্যবসা মানেই ঝুঁকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 

Back To Top